হারানো মোবাইলের অবস্থান গুগল ম্যাপে দেখবেন যেভাবে

হারানো মোবাইলের অবস্থান গুগল ম্যাপে দেখবেন যেভাবে

এই আর্টিকেলে দেখাবো কিভাবে মোবাইল ফোন হারিয়ে গেলে বা চুরি হয়ে গেলে তার লোকেশন জানতে পারবেন। মনের ভুলেও অনেক মোবাইল ফোন হারানোর অভিজ্ঞতা হয়তো আপনার রয়েছে। যেমন বাসার সোফার নিচে, গাড়িতে অথবা অন্য কোথায়ও ভুলে রেখে আসতে পারেন। আপনার ফোন আর হন্নে হয়ে খুঁজতে হবেনা। Google Maps এর location history এর সাহায্যে সহজেই জানা যাবে আপনার হেন্ডসেট কোথায় রয়েছে। এর জন আপনার ফোনটি হতে হবে এন্ড্রয়েড।

গুগল ম্যাপের এই ফিচারের মাধ্যমে এন্ড্রয়েড ফোন অথবা ট্যাবলেট এর লোকেশনও বার করা যাবে। তবে হাড়ানো এন্ড্রয়েড মোবাইলে অবশ্যই গুগল ম্যাপ ইন্সটল অবস্থায় থাকতে হবে। এ অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে মোবাইল ফোনের বর্তমান অবস্থান জানার সুযোগ পেতে হলে আপনার ফোনটি থেকে গুগল আইডি বা জিমেইল আইডি চালু বা লগইন থাকতে হবে এবং লোকেশন হিস্ট্রি চালু থাকতে হবে।

গুগল ম্যাপ ব্যাবহার করে যেভাবে জানবেন হাড়িয়ে যাওয়া মোবাইলের লোকেশন

১। আপনার জিমেইল আইডি যে ফোনে লগইন করা আছে সেই ফোনটি যদি হারিয়ে যায় তাহলে যেকোনো কম্পিউটার থেকে maps.google.com-এ ব্রাউজ করতে হবে।

২। এরপর আপনার হারিয়ে যাওয়া স্মার্টফোনে যে গুগল আইডি লগইন করা আছে, সেই অ্যাকাউন্টটিতে লগইন করতে হবে। তারপর maps.google.com-এর উপরে বাম দিকে তিনটি সরলরেখার মতো চিহ্ন যুক্ত মেনু দেখতে পাবেন। সেই মেনুতে ক্লিক করুন। 

৩। মেনুতে ক্লিক করার পর ‘ইয়োর টাইমলাইন’ নামে একটি অপশন দেখতে পাবেন। সেখান থেকে আপনি যে তারিখের লোকেশন দেখতে চান, সেই তারিখ সিলেক্ট করতে হবে। তাহলে গুগল ম্যাপের উপর আপনার হারিয়ে যাওয়া ফোনের লোকেশন দেখতে পাবেন।

উল্লেখ্য আপনার হারানো মোবইলে যদি সেলুলার ডাটা বা Wi-Fi অন থাকে তাহলে অবশ্যই আপনাকে লোকেশন দেখাবে। আবার যদি ফোনটি বন্ধ থাকে তাহলে লোকেশন দেখতে পারবেন না।

Find My Device ব্যাবহার করে মোবাইলের লোকেশন খোঁজ করতে অবশ্যই ১। সার্ভিসটি চালু থাকতে হবে। ২। Google Account এ সাইন ইন করা অবস্থায় থাকা লাগবে। ৩। হারানো মোবাইলটিতে মোবাইল ডাটা বা Wi-Fi কানেকশন থাকা লাগবে। ৪। লোকেশন চালু থাকা লাগবে।

১। এজন্য কম্পিউটারের যেকোন ব্রাউজার থেকে https://www.google.com/android/find এই ঠিকানায় যান।
২। তারপর ইমেইল ও পাসওয়ার্ড দিয়ে প্রবেশ করুন যে ইমেইলটি ঐ মেবাইলে ওপেন করা আছে।
৩। এখানে বাম পাশে দেখতে পারবেন ফোনের নাম দেখাবে সেখান থেকে আপনার ফোনটি সিলেক্ট করুন। তাহলেই আপনার হারানো ফোনের লোকেশন খোঁজা শুরু হবে। এবং লোকেশন খুঁজে পেলে স্ক্রিনে দেখাবে। কিন্তু cellular/Wi-Fi কানেকশন না থাকলে লোকেশন দেখাবে না।
হারানো মোবাইল লক করবেন যেভাবে
আপনার হারানো মোবাইলের ছবি, কন্টাক্ট লিস্ট, এ্যাপস সহ যাবতিয় তথ্য লক করে রাখতে চাইলে নিচের ধাপগুলো অনুসরন করুন।
১। পেজের বাম পাশে থাকা LOCK লেখার উপর ক্লিক করুন।
২। যদি পাসওয়ার্ড চায় তাহলে দিন।
৩। তারপর সংক্ষেপে কিছ লিখুন ও আপনার ফোন নাম্বার দিন।
৪। তারপর LOCK এ ক্লিক করুন। তাহলেই আপনার ফোনটি লক হয়ে যাবে এবং কেই আপনার তথ্য হাতিয়ে নিতে পারবেনা।
এই LOCK অপশন ব্যাবহার করে আপনার হারিয়ে যাওয়া মোবাইলে PIN, pattern বা password দিয়ে লক করে রাখতে পারবেন। এমনকি লক স্ক্রিনে মোবাইল ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য কোন কথা বা ম্যাসেজও বা ফোন নম্বর যোগ করতে পারবেন।

হারানো মোবাইলের ডাটা ডিলিট বা মুছে ফেলবেন যেভাবে

আবার আপনার ফোনটি হারিয়ে যদি নতুন ফোন কেনার চিন্তা করে থাকেন তাহলেও হারানো ফোনটিই আপনার জন্য চিন্তার কারণ হয়ে দাড়াতে পারে। অধিকাংশ মানুষের কাছেই ফোন হারানোটা কেবলই আর্থিক ক্ষতিই নয় বরং আপনার ব্যাক্তিগত গোপনীয়তা আর নিরাপত্তা ঝুকিও। আপনার ব্যাবহৃত মোবাইল ফোন বা স্মার্টফোন আপনার বিভিন্ন তথ্য, প্রয়োজনীয় ফোন নাম্বার বা আপনার লেনদেন সংক্রান্ত তথ্য ও ব্যাক্তিগত ছবি  ধারণ করে রাখে। তাই বেশীরভাগ ক্ষেত্রে সবাই নিজের ফোনটি ফিরে পেতে চায় অক্ষতভাবে কোন ডাটা না হারিয়েই। কিন্তু তা যদি সম্ভব না হয় সেক্ষেত্রে সবার চাওয়া অন্তত ফোনটি যেন কেউ ব্যবহার না করতে পারে বা সংরক্ষিত তথ্যগুলো যেন মুছে ফেলা যায়। এতে আপনার আপনার একান্ত ব্যক্তিগত আর গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো বেহাত হওয়া থেকে বাঁচবে।

আপনার হারিয়ে যাওয়া মোবাইল সেট উদ্ধারের সব আশাই যদি শেষ হয়ে যায়, সে ক্ষেত্রে এটাই আপনার শেষ ভরসা। মোবাইলে থাকা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যেন অন্য কারও হাতে না পড়ে সেজন্য সেগুলো স্থায়িভাবে মুছে ফেলতে পারেন গুগলের এই ফিচারের সাহায্যে। (ERASE DATA) অপশনটি ব্যবহার করে মোবাইলের সব ডেটা মুছে ফেলতে পারবেন। কিন্তু মেমরি (SD card) কার্ডের ডাটা মুছবেনা।

মোবাইল যদি অফলাইনে থাকে বা ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত না থাকে, তবে যখনই অনলাইনে আসবে, সঙ্গে সঙ্গে সব তথ্য মুছে যাবে। তবে এর ফলে গুগলের সাহায্য নিয়ে আর সেট খুঁজে পাওয়ার উপায় খোলা থাকবে না। তবে সেট খুঁজে পেলে জিমেইল আইডি দিয়ে আবারও ব্যবহার করতে পারবেন সেই সেট।

গুগলের Find My Device ফোনে এনাবেল করবেন যেভাবে

অ্যান্ড্রয়েডের আধুনিক সব ভার্শনেই Find My Device সার্ভিসটি ডিফল্ট ভাবে দেওয়া থাকে। যদি না থাকে তাহলে বখোন থেকে ডাউনলোড করে নিন download Find My Device from the Google Play Store . সার্ভিসটি সেটআপ বা একটিভ করার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরন করুন।

১। ফোনের Settings এ যান।
২। Security & lock screen এ যান।
৩। Device administrators এ যান।
৪। Find My Device এ ট্যাপ দিন। দেখবেন চেকবক্স আছে।
৫। উপরের back button ক্লিক করুন।
৬। আবারোও back button ক্লিক করুন এবং মেইন Settings menu তে আসুন।
৭। এবার Settings menu এর Location এ ট্যাপ করুন।
৮। Location এর switch এ ক্লিক করে turns on করুন।
৯। তারপর Mode এ ট্যাপ দিন।
১০। এখান থেকে High accuracy সিলেক্ট করুন।
১১। back button ট্যাপ করুন।
১২। এবার Google Location History এ ট্যাপ করুন।
১৩। Location History এর switch টিকে ট্যাপ দিয়ে turns on করুন।

মোবাইলটি আপনার ঘরের মধ্যেই নেই তো!

আপনার মোবাইল যদি আপনার বাসা বাড়ির কোন রুমে থাকে তখন কিন্তু গুগল জানাবেনা কোন রুমে মোবাইল রয়েছে। কিন্তু এক্ষেত্রেও রয়েছে গুগলের বিশেষ সুবিধা। আপনি Play sound অপশন এর দ্বারা রিং দিয়ে দেখতে পারেন কোথায় আছে মোবাইল। রিং লিঙ্কে ক্লি  করলে আপনার মোবাইল ৫ মিনিট ফুল ভলিউয়মে বাজবে এমনকি আপনার ফোন যদি সাইলেন্ট বা ভাইব্রেশন করাও থাকে।

Recommended For You

About the Author: Techohelp

"Techohelp" একটি টিউটরিয়াল ভিত্তিক বাংলায় ব্লগ। যারা কম্পিউটার, ইন্টারনেট, ওয়েবসাইট এবং অনলাইন প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে চান তাদের জন্য Techohelp একটি দারুন প্লাটফরম। অনলাইনে ইনকাম বা ফ্রিলাঞ্চিং বিষয়ে জানতে ও শিখতে আগ্রহিদের কথা মাথায় রেখে, ওয়েবসাইটের সকল কন্টেন্ট এমন ভাবে লেখা হয় যেন আপনি নিজেই ঘরে বসে নিজের মতন সহজে শিখতে পারেন। ফেসবুকে আমাদের সাথে যুক্ত থাকুনঃ https://www.facebook.com/Techohelp/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *