ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে কি কি জানতে হবে?

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে কি কি জানতে হবে

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখবেন বা শিখছেন কিন্তু কি শিখবেন বুঝতে পারেছেন না, তাদের জন্য এই টিউটোরিয়াল। ওয়েব ডেভেলপমেন্ট হল একটি ওয়েবসাইটের জন্য এপ্লিকেশন তৈরী করা। অর্থাৎ লগিন সিস্টেম, ফাইল আপলোড করে ডেটাবেসে সেভ করা, নিউজলেটার সাইনআপ, পেজিনেশন, ইমেজ ম্যানিপুলেশন, সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ারিং, বাটন ইত্যাদি এপ্লিকেশন তৈরী করাকে বুঝায়। মূলত একজন ওয়েব ডিজাইনার একটি ওয়েবসাইটের বাহ্যিক অবকাঠামো তৈরী করার পর সেটিতে ওয়েব এপ্লিকেশন দিয়ে ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করেন একজন ওয়েব ডেভেলপার। সাধারণত একজন ওয়েব ডিজাইনার স্ট্যাটিক ওয়েব পেজ তৈরি করেন আর সেটাকে ডাইনামিক করার কাজটা ডেভেলপারকে করতে হয়। আপনি যদি একজন ভালমানের ওয়েব ডেভেলপার হতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে গেলে নিন্মোক্ত বিষয় গুলো জানতে হবে-

ওয়েব ডিজাইনার হতে কি কি শিখব? ক্যারিয়ার গাইডলাইন

এইচটিএমএল (HTML):
এইচটিএমএল এর পূর্ণ অর্থ হল- হাইপারটেক্সট মার্কআপ ল্যাংগুয়েজ (Hyper Text Markup Language). এটি একটি মার্ক আপ ল্যাংগুয়েজ। এটা কিন্তু কোনো প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ না। অন্য যেকোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর তুলনায় এইচটিএমএল শেখা অনেক সহজ। এটা এতটাই সহজ যে যেকোন সাধারন মানুষ কোন প্রকার প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এর জ্ঞান ছাড়াই HTML শিখতে পারবে। এইচটিএমএল কে একটি ওয়েব পেইজ এর কংকালও বলা হয়। এটা দ্বারা ওয়েব পেইজ এর মূল গঠন তৈরি করা হয়। মনে করেন আপনি একটা ঘর বানাবেন, এর জন্যে যা যা দরকার যেমন-ইট, বালু, সিমেন্ট ইত্যাদি। এসব দিয়ে কিন্তু ঘর তুলে ফেলতে পারবেন। ঠিক এরকমই এইচটিএমএল দিয়ে ওয়েব পেজের কাঠামো তৈরী করা হয় এবং কতোগুলো ট্যাগ ব্যবহার করে এই কাজ করতে হয়। যেমন- কোনো কিছু লিখলে <p></p> ব্যবহার করতে হবে।

সিএসএস (CSS):
সিএসএস এর পূর্ণ অর্থ হল- ক্যাসকেডিং স্টাইল শিট (Cascading Style Sheets সিএসএস মাধ্যেমে আপনার ওয়েব পেজ দেখতে সুন্দর করতে পারবেন। CSS নির্ধারণ করে দেয় ব্রাউজারে যে ডকুমেন্ট গুলো HTML দ্বারা প্রদর্শিত হবে সেটি দেখতে কেমন হবে। অর্থাৎ বেকগ্রাউন্ড কি হবে, লেখাটার ফন্ট কত বড় হবে, কি রঙ হবে, পাশে কতটুকু জায়গা খালি থাকবে, একটা লেখা থেকে আরেকটা লেখার দূরত্ব কতটুকু হবে, এমনকি সর্বশেষ CSS3 দিয়ে কন্টেন্টে এনিমেশন ও যুক্ত করা যায়। একটি ওয়েব পেজকে সুন্দর রুপ দিতে আপনাকে অবশ্যই সিএসএস আর ব্যবহার জানতে হবে। ওই যে ঘর তুললেন মনে আছে? ঘর তোলার পর আপনি দেখতে সুন্দর করার জন্য রং করতে পারেন, দরজা-জানালা ভালোভাবে ঠিক জায়গায় লাগাতে পারেন। আর এই কাজটাই করে সিএসএস।

স্ট্যাটিক এবং ডাইনামিক ওয়েবসাইটের মধ্যে পার্থক্য কি?

ফটোশপ (Adobe Photoshop):
ওয়েব ডিজাইন এর জন্য ফটোশপ এর বেসিক ধারণা থাকাটা জরুরি। এখানে ফটোশপের যে মূল কাজটি শিখতে হবে, তাহলো পিএসডি থেকে এইচটিএমএল (PSD to HTML) টেমপ্লেট বানানো। এছাড়া ছবি সাইজ করা, লোগো, ব্যানার, বাটন ইত্যাদি তৈরী করা শিখতে হবে।

জাভাস্ক্রিপ্ট (JavaScript):
জাভাস্ক্রিপ্ট হল ক্লাইন্ট সাইড স্ক্রিপটিং ল্যাংগুয়েজ এটাকে আবার ব্রাউজার স্ক্রিপ্টিং বা ব্রাউজার এর ভাষাও বলা হয়। অর্থ্যাৎ এই ল্যাংগুয়েজ দিয়ে লেখা কোড শুধুমাত্র কোন ব্রাউজার যেমন- ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার (Internet Explorer), মজিলা ফায়ারফক্স (Mozilla Firefox), অপেরা মিনি (Opera Mini), গুগল ক্রোম (Google Chrome) ইত্যাদিতে এই স্ক্রিপ্টগুলোকে run/execute করে। জাভাস্ক্রিপ্ট স্ক্রিপ্টিং প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ যার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েব পেজের কঠিন কিছু কাজ খুব সহজেই করতে পারবেন। ওই যে আপনি ঘর তুললেন, রং করলেন সবই হলো তাহলে আর বাকি কি? এখন আপনি যদি চান সুইচ দিলে আপনার ঘরে ফ্যান ঘুরবে। এই যে কিছু ফাংশনাল কাজ এই কাজগুলোই করে জাভাস্ক্রিপ্ট।

জেকুয়েরি (jQuery):
জেকুয়েরি হচ্ছে জাভাস্ক্রিপ্টের একটা ফাংশন লাইব্রেরী। জেকুয়েরি আপনার ওয়েবসাইটের জাভাস্ক্রিপ্ট এর ব্যবহারকে সহজ করে দিবে। জাভাস্ক্রিপ্টে যে প্রোগ্রামটি করতে আপনার অনেক সময় লাগত, জেকুয়েরির মাদ্যামে আপনি অতি অল্পসময়ে খুব সহজেই প্রোগ্রামটি করতে পারবেন। জেকুয়েরি শেখার আগে আপননাকে অব্যশই এইচটিএমএল (HTML), সিএসএস (CSS), জাভাস্ক্রিপ্ট (Java Script) জানতে হবে। এই ল্যাংগুয়েজ এগুলো না জানলে আপনি জেকুয়েরি শিখতে পারবেন না।

পিএইচপি (PHP):
পিএইচপি এর পূর্ণ অর্থ হল- হাইপারটেক্সট প্রিপ্রসেসর (Hypertext Preprocessor). পিএইচপি একটি সার্ভার সাইড ক্রস প্লাটফর্ম প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ এটাকে আবার সার্ভার সাইড স্ক্রিপ্টিং ও বলা হয়। কারণ এই প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ দিয়ে লেখা কোড গুলো শুধুমাএ সার্ভারে এক্সিকিউট বা নির্বাহ হয়। স্ক্রিপ্টিং হচ্ছে প্রোগ্রামের আরেকটা সমার্থক শব্দ। এটা হচ্ছে কিছু instruction এর সেট, যা run করলে স্বয়ংক্রিয় ভাবে কিছু কাজ হয়ে যায়।
আর সার্ভার সাইড বলতে বুঝায় এই স্ক্রিপ্ট গুলোকে ব্যাবহারকারির কম্পিউটার থেকে নিয়ন্ত্রনের বদলে সার্ভার থেকে handle বা নিয়ন্ত্রন করা। যখন কেউ PHP দিয়ে তৈরি করা কোন ওয়েব পেইজ ভিজিট করবে তখন ওয়েব সার্ভার পিএইচপি কোডগুলিকে কিছু Process করবে। যেমন- যেটা দেখানো প্রয়োজন (Image, Content etc) সেটি ইউজারকে দেখাবে আর যেটি লুকিয়ে রাখা প্রয়োজন (math calculation, file operation etc) তা লুকিয়ে রাখবে এবং শেষে HTML এ রুপান্তর করে ইউজারের ওয়েব ব্রাউজারে পাঠাবে। পিএইচপি মূলত ওয়েব ডেভেলপমেন্ট করার জন্য ব্যবহার হয়। এই প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজটির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে একটি ওয়েব সাইটকে ডাইনামিকালি তৈরী করা।

মাইএসকিউএল (MySQL):
মাইএসকিউএল এর পূর্ণ অর্থ হল- মাই স্ট্রাকচারড কুয়েরী ল্যাংগুয়েজ (My Structured Query Language)। মাইএসকিউএল আসলে SQL (Structured Query Language ) এর একটি সুপারসেট ভার্সন, SQL সাধারণত ডাটাবেস এর সাথে কমিউনিকেট করার জন্য ব্যবহার করা হয়। অর্থাৎ এসকিউএল হচ্ছে একটি ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম(DMS) এবং এর সাথে আলাদা অনেক ফিচার যুক্ত করে তৈরি করা হয়েছে MySQL. পিএইচপি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ দিয়ে একটি ডাইনামিক ওয়েব সাইট তৈরী করতে গেলে ডেটাবেসের প্রয়োজন হয়। আর এসকিউয়েল বা মাইএসকিউয়েল দিয়ে এই ডেটাবেস ডিজাইন বা তৈরী করতে হয়। পিএইচপি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ দিয়ে একটি ডাইনামিক ওয়েব সাইট তৈরী ক্ষেএে SQL বা MYSQL এর গুরুত্ব অপরসীম।

ফ্রেমওয়ার্ক (Frame Work):
পিএইচপি ফ্রেমওয়ার্ক যেমন- কোডইগনাইটার, কেক পিএইচপি, জেন্ড ফ্রেমওয়ার্ক, সিমফনি, ওয়াই আইআই, কোহানা ইত্যাদি এর যেকোন একটা শিখলেই আপনি খুব সহজে একটি ডাইনামিক ওয়েব সাইট তৈরী করতে পারবেন। কোন ফ্রেমওয়ার্ক ছাড়াও ডাইনামিক ওয়েব সাইট তৈরী করতে পারবেন, তবে এতে বেশি সময় লাগবে এবং বেশি কোড লিখতে হবে।

সিএমএস (Content Management System):
ওয়েব ডেভেলপিং এ নিজেকে উন্নততর করতে CMS সম্পর্কে জানতে হবে। CMS হচ্ছে “কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম”. অর্থাৎ, এটি দিয়ে কোন কোডিং না জেনেই ওয়েবসাইট নিয়ন্ত্রন করা যায় । ধরুন আপনার এমন একটি ওয়েবসাইট আছে যেটিতে আপনি প্রতিদিন নতুন কিছু যোগ করবেন । কিন্তু প্রতিদিন ওয়েবসাইট এর কোড এডিট করে নতুন কিছু যোগ করা কষ্টসাধ্য । সে ক্ষেত্রে আপনি বিভিন্ন CMS ব্যবহার করতে পারেন । এসব CMS গুলো এমন ভাবে কোড করা থাকে, যেন পরবর্তীতে আপনাকে কোন কোডিং করতে হয় না । সহজেই আপনি আপনার ওয়েবসাইট নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন । অনেক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এবং ব্লগ CMS দিয়ে তৈরি । কিছু জনপ্রিয় CMS হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা, ড্রুপাল ইত্যাদি । ওয়ার্ডপ্রেস এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় । কারণ এটি ব্যবহার করা খুবই সহজ এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি । ভালো ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে আপনাকে অবশ্যই কমপক্ষে একটি CMS এর উপর ভাল ধারণা থাকতে হবে ।

রেসপন্সিভ ওয়েব ডিজাইন কি?

ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্টের জন্য আরোও কি কি শিখতে হবে?

Html, CSS, CSS3, Javascript, Jquery, Psd to Html,
Twitter Bootstrap,Responsive Web Design.
PhP & Mysql
PhP Codeigniter
WordPress
WordPress theme Development

XML জানতে হবে। এর অর্থ হচ্ছে eXtensible Markup Language.এটা ডেটা বহন (Transport) এবং সংরক্ষন করার জন্য ব্যাবহার করা হয়। এটা জানা খুব গুরত্বপূর্ন কিন্তু শেখা খুব সহজ। এর সাহায্যে সহজেই নিজের মত করে ডেটাকে সংগায়িত করা যায়। নিজের মত করে মানে এর ভিতরের লেখা এবং বাইরের ট্যাগ নিজের মত করে করা যায়। XML শেখার আগে আপনাকে HTML এবং Javascript জানতে হবে।

ওয়েব ডেভেলপার হতে হলে কি কম্পিউটার সায়েন্স থেকে পাস হতে হবে?

আমাদের সমাজের মধ্যে অনেক ভুল ধারণার মধ্যে এটিও একটি ভুল ধারণা। প্রকৃতপক্ষে বাহ্যিকভাবে দেখলে কম্পিউটার সায়েন্স থেকে পাস করা ছাত্রদেরই বেশি সফল হওয়ার কথা; কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। বেশিরভাগ ওয়েডেভেলপমেন্ট সম্পর্কিত অফিসগুলোতে গেলেই যে তথ্য পাওয়া যায়, সেখানে দেখা যায় ৯০ ভাগ ওয়েবডেভেলপারের এডুকেশন ব্যাকগ্রাউন্ড ভিন্ন।

কিভাবে শিখবেন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখতে সর্ব প্রধান কাজ হল নিজের মধ্যে আগ্রহ তৈরি করা ও মনস্থির করতে হবে যে কমপক্ষে দুই বছর সময় ব্যয় করবেন শুধু শেখার জন্য। প্রথমে কিছুই বুঝবেন না তারপরও ধৈর্য ধরে এগিয়ে যান। এই লাইনে এক্সপার্ট একজন মানুষের পরামর্শ মত প্রতি ধাপে ধাপে আগানো। কোন ট্রেনিং সেন্টার শিখলে সেটার পাশাপাশি নিজে নিজে প্রচুর প্র্যাকটিস করেন আর গুগলকে কাজে লাগান। যেই বিষয় যখনই কোন সমস্যা মনে হবে গুগলে সার্চ দিয়ে বিষয়টা শিখে নিন।

কোথায় শিখবেন ?

এখন অনলাইনে প্রচুর রিসোর্স যে খুব সহজে একা একাই আপনি শিখতে পারবেন। w3schools যেখানে সব টিউটোরিয়াল রিসোর্স পাবেন। আর টুলস্ পেজে পাবেন সব রকম টুলস্ । অথবা বিভিন্ন প্রকার ট্রেনিং সেন্টার থেকেও শিখতে পারেন। একটা ব্যাপারে লক্ষ্য রাখবেন ।আমাদের দেশে এখন পযর্ন্ত ভাল মানের ট্রেনিং সেন্টার আছে হাতে গোনা কয়েকটি।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শেখার কিছু ভালো ওয়েবসাইট http://www.w3schools.com
এইটাকে ওয়েব ডিজাইনিং শিখার বাইবেল বলা হয়ে তাকে। কারন এই ওয়েবসাইট থেকে আপনি HTML, CSS, JavaScript, Jquery, AJAX, PHP, ASP এর সবকিছু শিখতে পারবেন।
http://getbootstrap.com
এটা হলো একটা ফ্রেমওয়ার্ক। অত্যন্ত দারুন একটা ফ্রেমওয়ার্ক। যা আপনার ওয়েব ডিজাইন করার অভিজ্ঞতাই পরিবর্তন করে দিবে।

Recommended For You

About the Author: Soikat Singha

আমি একজন ফুলস্টেক ওয়েব ডেভেলপার। ডোমেইন এবং হোষ্টিং প্রোভাইডার হিসেবে কাজ করছি বহু বছর। আমার বিশ্বাস আপনি ফ্রিল্যান্সিং বা অনলাইন ক্যারিয়ার বিষয়ে শিখতে চান। আমার লেখা বাংলা টিউটোরিয়াল আপনার ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্টে একটুও সাহায্য করতে পারলেই আমার সার্থকতা। ফেসবুকে আমার সাথে যুক্ত থাকুনঃ https://www.facebook.com/soikatsingha24

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *